কি কি আছে এই সফটওয়্যার এ? ​

সমিতি কিপার এর বিশেষত্ব

0 +
সক্রিয় ব্যবহারকারী
0
সাপোর্ট অফিস
0 +
রিপোর্ট
0
জেলা কভারেজ
0 +
এমপ্লয়ী
0 +
অভিজ্ঞতা/বছর
0 %
গ্রাহক সন্তুষ্টি
গুরুত্বপূর্ন বিষয়। অবশ্যই পড়ুন 
 
সমিতি কিপার একটি রেডিমেড সফটওয়্যার। এটা দেশের বিভিন্ন প্রান্তের সমবায় এবং মাইক্রোফাইন্যান্স ব্যবসায়ীদের দৈনন্দিন কাজের সুবিধার্থে প্রস্তুতকৃত একটা সিস্টেম।
রেডিমেড বিষয়টা আশাকরি সবাই বোঝেন। রেডিমেড সফটওয়্যার আর কাস্টমাইজড সফটওয়্যার এর মধ্যে আকাশ-পাতাল তফাৎ।
 
কমন প্লাটফর্মে তৈরি রেডিমেড সফটওয়্যারগুলো প্রতিষ্ঠান এর নিয়ম অনুযায়ী চলে। প্রতিষ্ঠান সবসময় চেষ্টা করে যাতে সবার স্বার্থ রক্ষা হয়। এরপরেও টুকিটাকি কিছু কাস্টমাইজেশন ক্ষেত্রবিশেষে করা হয়। এবং সফটওয়্যার অবশ্যই পরিবর্তনশীল বা পরিবর্তনযোগ্য।
 
উল্লেখ করার বিষয় হচ্ছে সমিতি কিপার এখনো পর্যন্ত কাস্টোমাইজেশনের জন্য উল্লেখযোগ্য কোন অতিরিক্ত পেমেন্ট গ্রহন করেনি। এবং করবেও না।
তার পরেও আমরা শুরু থেকেই প্রায় সবার প্রয়োজনীয় কাস্টমাইজেশন সমন্বিত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি এবং ডেভলপমেন্টের কাজ অব্যাহত রেখেছি।
 
আর একটা রেডিমেড বিষয়ে সবার মনঃপুত হবে না এটা খুবই স্বাভাবিক বিষয়। মানুষ বা ব্যাবসায়ী হিসেবে আমাদের চিন্তা ধারা এবং চাহিদা ভিন্ন। অতএব মনের মতন কিছু যদি দরকার হয় তাহলে রেডিমেট এর দিকে তাকানো বোকামি।  সেক্ষেত্রে আপনাকে কোন বড় বা ভালো কোম্পানির শরণাপন্ন হতে হবে।
 
সমিতি কিপার সবার চাহিদা কখনোই পূরণ করতে পারবে না। সে ক্ষেত্রে বাজারে প্রচলিত অন্যান্য রেডিমেড সফটওয়্যার বা স্বনামধন্য কোন কোম্পানি থেকে সফটওয়্যার বানিয়ে নেওয়া যেতে পারে।
 
সমিতি কিপার এর বিকল্প হিসেবে যে সকল সফটওয়্যার গুলো ব্যবহার হতে পারে সেগুলোর নামের তালিকা আমাদের সমিতি কিপার এর ওয়েবসাইটে দেওয়া রয়েছে আরও 6 মাস আগে থেকেই।
 
ভালোভাবে বুঝে শুনে সিদ্ধান্ত নিবেন , কারন সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষমতা নিতান্তই আপনার। আমরা সর্বোচ্চ আপনাকে অ্যাপ্রচ করতে পারি সমিতি কিপার সফটওয়্যার এর দিকে।
 
“সমিতি কিপার” মাইক্রো – ক্রেডিট সফটওয়ার
 
এই সফটওয়ারটি তৈরী করা হয়েছে মূলত: আর্থিক প্রতিষ্ঠানের (বিভিন্ন সমবায় সমিতি/ মাল্টিপারপাস /এনজিও/বীমা) সদস্যদের তথ্য সংরক্ষণ ও আর্থিক ব্যবস্থাপনার কাজ সহজ ও সাবলিল করার জন্য।
 
এই সফটওয়ারের প্রধান বৈশিষ্ট্য হচ্ছে:-
 
এই সফটওয়ারের মাধ্যমে সহজেই কোন আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সকল কর্মকর্তা, কর্মচারী ও সদস্যদের ছবি সহ সকল প্রয়োজনীয় তথ্য সংরক্ষণ (Save), সংযোজন(Add), বিয়োজন(Delete), সম্পাদনা (Edit) ও তল্লাশি (Search) করা যায়।
প্রতিষ্ঠানের সকল ধরণের খরচ খাতওয়ারী, তারিখ অনুযায়ী, যে কোন শাখার যে কোন কর্মীর আওতায় যে কোন সদস্যের নামে প্রয়োজনীয় তথ্যসহ এন্টি করা যায়।
 
এছাড়া সংরক্ষিত তথ্য মোছা, সংশোধন, শাখাওয়ারী/মাসওয়ারী/বছর ওয়ারী মোট খরচ বের করা, কোন কর্মী/সদস্যের আওতায় কত খরচ তা জানা যায়, মাস বা বছর ওয়ারী যে কোন খরচের তথ্য রিপোর্ট আকারে প্রিন্ট করা যায়।
প্রতিষ্ঠানের সকল ধরণের আয় খাতওয়ারী, তারিখ অনুযায়ী, যে কোন শাখার যে কোন কর্মীর আওতায় যে কোন সদস্যের নামে প্রয়োজনীয় তথ্যসহ এন্টি করা যায়।
 
এছাড়া সংরক্ষিত তথ্য মোছা, সংশোধন, শাখাওয়ারী/মাসওয়ারী/বছর ওয়ারী মোট আয় বের করা, কোন কর্মী/সদস্যের আওতায় কত জমা হল তা জানা যায়, মাস বা বছর ওয়ারী যে কোন আয়ের তথ্য রিপোর্ট আকারে প্রিন্ট করা যায়।
এই সফটওয়ারের মাধ্যমে সহজেই যে কোন শাখার সকল তথ্য (ম্যানেজারের তথ্য, সকল কর্মী, সদস্য, মোট আয়, মোট খরচ প্রভৃতি) জানা যায়।
 
বিনিয়োগ সংক্রান্ত সকল তথ্য (কবে, কাকে, কোন খাতে, কত টাকা বিনিয়োগ করা হয়েছে, গ্রহিতার ছবিসহ স্বাক্ষর, গ্যারান্টারের ছবিসহ স্বাক্ষর, কত কিস্তিতে, কত লাভে, কত দিনের মধ্যে টাকা পরিশোধ করতে হবে ইত্যাদি) এই সফটওয়ারের মাধ্যমে সহজেই ব্যবস্থাপনা করা যায়।
বছর শেষে অডিট রিপোর্ট এর জন্য দিনের পর দিন কষ্ট করে হিসেব নিকেশ করতে হয় না। মাত্র এক মিনিটেই আপনার এই সকল হিসেব-নিকেশ এর আউটপুট দিতে সক্ষম।
 
বাৎসরিক লাভ লোকসান , মাসিক লাভ লোকসান , Balance sheet, প্রফিট বিতরন, Trial Balance, ব্যাংক হিসেব-নিকেশ, পার্সোনাল স্টেটমেন্ট , ভাউচার , জেনারেল লেজার ইত্যাদি সকল প্রকার একাউন্টিং রিপোর্ট রেডি করা রয়েছে।

আমাদের কার্যক্রমের অংশবিশেষ

কেন সমিতি কিপার-ই পছন্দ করতে হবে?

আমরা দিচ্ছি পানির মত সহজ এক সিস্টেম যা পড়াশুনা না জানা লোকজন ও একবার দেখিয়ে দিলে ব্যবহার করতে পারবে 

সহজ ও সাবলীল

একদম সহজে সব কাজ করতে পারবেন কোন ধরনের ঝামেলা ছাড়াই

বাংলা / ইংরেজী

দৈনন্দিন ব্যবহৃত শব্দগুলো ব্যবহার করা হয়েছে এই সিস্টেমে

মেসেজিং সিস্টেম

ক্লায়েন্টকে জমা / উত্তোলন বকেয়া এর SMS

মোবাইল ফ্রেন্ডলি

শতভাগ কাজ মোবাইল থেকেই করতে পারবেন। বিশেষ করে টাকা আদায়

আমাদের কথা

“বঙ্গবন্ধুর দর্শন,  সমবায়ে উন্নয়ন”। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সমবায়ের মাধ্যমে এদেশের সাধারন মানুষের ভাগ্যন্নয়নের স্বপ্ন দেখেছিলেন এবং কাজ শুরু করেছিলেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও বঙ্গবন্ধুর দর্শনকে সামনে নিয়ে সমবায়কে উন্নয়নের একটি অন্যতম মডেল হিসেবে বেছে নিয়েছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়ন ভাবনাকে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আমরা সমবায়ীদের জন্য সেবার মান বৃদ্ধি, সহজ ও আধুনিকায়ন করার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছি।

 

এ উদ্ভাবনী উদ্যোগটি সফল পাইলটিং এর পর দেশের ৮ টি বিভাগের ৬১ টি জেলায় রেপ্লিকেটিং এর জন্য মনোনীত হয়েছে।  সফটওয়্যার বাজার বাংলাদেশ এর এ উদ্ভাবনী উদ্যোগ সারাদেশে বাস্তবায়ন হলে সমবায় সমিতিগুলোতে সেবার মান বৃদ্ধি পাবে, সমবায় সমিতিগুলো সফল ও কার্যকর হবে। সেই সাথে সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ ভাবনায় সমবায় সমিতিগুলো আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে কাঙ্খিত ভূমিকা রাখতে সক্ষমতা অর্জন করবে।